দেশে অবৈধ আয় ও বিবাহযোগ্য কন্যা বেড়েছে

লিখেছেন স্বপ্নচারী মাঝি ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৬:০২ সন্ধ্যা


সারাদেশে এবং বিশেষ করে রাজধানী ঢাকায় অবৈধ উপার্জনের পাশাপাশি বেড়ে গেছে বিবাহযোগ্য কন্যার সংখ্যা। মোটামুটি কোনোভাবে একটি উৎসব ঘোষণা করতে পারলেই এর প্রমাণ দেখতে খুব বেগ পেতে হয় না। এই কিছুদিন আগে সাকরাইন উৎসবের কথাই যদি বলি, এটি ঢাকার একটি ঐতিহ্যবাহী প্রাচীন উৎসব তাতে কোন সন্দেহ নেই।
কিন্তু কে কোন জনমে এমন দেখেছে যে, এই দিনে সেজেগুজে কেউ জোড়া বেঁধে কেউ জোড়া ছাড়াই দলে দলে...

অাগামী কালের অাশা

লিখেছেন ওবায়েদ উল্লাহ সোহেল ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৪:১৮ বিকাল

মাঝে মাঝে নিজেকে অর্থহীন মনে
হয়,আবার মাঝে মাঝে নিজেকে
লাগে অচেনা অন্য কোথাও! ঘুমান্ত
স্বপ্ন গুলোকে বাচিয়ে রাখি আগামী
কালের আশায়। আমি প্রতিক্ষায় থাকি
আগামীকালের,কিন্তু আগামীকাল আসে
না।

রাম আর বাম নাকি বাম আর রাম

লিখেছেন চোরাবালি ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৪:১৩ বিকাল

বামদের রাম রামশুনতে শুনে নিজেই গুলিয়ে ফেলি, কোনটার আগে কি? রামের আগে বাম নাকি বামের আগের রাম!!!! অনেক তর্ক বিতর্ক চলছে বাম আর ইসলাম নিয়ে। পৃথিবীর শান্তির জনক সবার সমমর্যদা'র তরিকত প্রাপ্ত বামদের কারনের পৃথিবীতে এসেছে শান্তির ত্রাণ।
আমি শুধু দর্শক আর শুনে যাচ্ছি দু'পক্ষের তর্ক বিতর্ক। পেপার পড়ার মত ধর্য্য না হলেও যেন তাদের কথায় স্বাক্ষী না মেনে বসে তাই পেপারে মননিবেশ। যা হউক...

বিচার ব্যবস্থায় ডিজিটালের ছোঁয়া

লিখেছেন ইগলের চোখ ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৩:৫১ দুপুর


ডিজিটালের ছোঁয়া লেগেছে বাংলাদেশের প্রতিটি কোনায়।দেশে প্রথমবারের মতো ডিজিটাল পদ্ধতিতে বন্দীর বিচারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এই ব্যবস্থায় আদালতে না নিয়েই কারাগারের ভেতরে রেখেই বন্দীর হাজিরা, সাক্ষী ও জবানবন্দী নিয়ে বন্দীর বিচার করা হবে। এর মাধ্যমে আসামিকে কারাগারে রেখেই শেষ হবে পুরো বিচার কাজ। বিচার ব্যবস্থায় উন্নত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতো বাংলাদেশেও ডিজিটাল পদ্ধতি...

আমাদের পূর্ব পুরুষদের শত্রু-মিত্র পর্ব ৩২

লিখেছেন আনিসুর রহমান ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৯:০৭ সকাল

পূর্বে আমরা যুক্তি প্রমান উপস্থিত করে দেখিয়ে ছিলাম যে বাংলার শাসক আলাউদ্দীন হোসেন শাহ্‌ একজন মুসলিম শাসক হওয়া সত্বেও শ্রী চৈতন্য মহাপ্রভুর বৈষ্ণব মুভমেন্টের প্রধান পৃষ্ঠপোষক হিসাবে ভুমিকা পালন করে। কিন্তু কেন? বুঝার সুভিদার জন্য এর উত্তর আমরা সরাসরি না দিয়ে ঘটনার পরমপরা তা খুঁজতে চেষ্টা করব। প্রথমেই আমরা দেখব শ্রী চৈতন্য মহাপ্রভুকে হোসেন শাহ্‌ কীভাবে সস্মান করত? তার...

কন্যার কা‌ছে প্রবাসী বাবার খোলা চি‌ঠি‌

লিখেছেন সিটিজি৪বিডি ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৪:৪৭ রাত


বই পড়ার আনন্দ দ্বিগুন হয়,
যখন এমন একজনের স‌ঙ্গে‌ বসবাস করা যায়,
‌যে আমার মত একই বই গু‌লো পড়‌তে ভা‌লোবা‌সে।
ছ‌বি‌তেঃ একমাত্র কন্যা
"কন্যার কা‌ছে প্রবাসী বাবার খোলা চি‌ঠি" লি‌খেছিলাম প্রবাস‌ে ব‌সে। তখন কন্যা শিক্কা জীব‌নে প্র‌বেশ করে‌নি। এখন ক্লাস টু‌তে প‌ড়ে ব‌লে চি‌ঠিট‌ি পড়‌তে পা‌রে। য‌দিও চি‌ঠির ভাষা বুঝ‌তে আরো সময় লাগ‌বে। বই হা‌তে পে‌য়ে কন্যা তো মহা খুশী। পড়ার...

বিতর্কিত নির্বাচন কমিশন

লিখেছেন শিহাব আহমদ ১৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০১:৫৩ রাত

দেশের নির্বাচন কমিশন নিয়ে বিতর্ক যেন শেষ হতেই চায় না। রকিব মার্কা ধামাধরা নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষে নতুন যে কমিশনটি গঠিত হয়েছে সেটি নিয়েও বিতর্কের সূত্রপাত হয়েছে। স্বাধীনতার ৪৬ বছর হতে চলল এখনও এ বিতর্কের সমাধান ঘটল না। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের একটি বড় লক্ষ্য ছিল পাকিস্তানের স্বৈরতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থার পতন ঘটিয়ে একটি স্বাধীন, সর্বভৌম ও গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা।...

সিইসির আওয়ামী মিষ্টিমুখের কবিতা

লিখেছেন কাব্যগাথা ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১০:৩৮ রাত

হাঃ হাঃ হাঃ কি সুখ,
সিইসি করেছেন মিষ্টি মুখ !
আওয়ামী মিষ্টিমুখে সিইসির হাসি,
সুষ্ঠু নির্বাচনী আশায় পড়েছে ফাঁসি |
সে মিষ্টিমুখে দেশের মুখ তিক্ত,
সুষ্ঠু নির্বাচনী আশা ক্ষতবিক্ষত |
নীল দংশনে গণতন্ত্র আবারো রক্তাক্ত,

জ্বিন মানুষের গল্প- অন্তরজগত (প্রথম পর্ব)

লিখেছেন চাটিগাঁ থেকে বাহার ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৯:১৮ রাত


(প্রথম পর্ব)
অনন্ত আকাশের উপরে স্তরে স্তরে ভাসমান আসমান আর নীচে বিস্তৃর্ণ ভূমন্ডল। আসমানে ফেরেস্তা আর ভূমন্ডলে জ্বিনজাতি। ফেরেস্তা নূরের তৈরী আর জ্বিন ধূয়াবিহীন আগুনের তৈরী। আল্লাহ বলেন, ‘আর এর পূর্বে জ্বিনকে বানিয়েছি ধ্রুম্রহীন বিশুদ্ধ অগ্নি হতে’। ফেরেস্তার নিজস্ব কোন স্বাধীনতা না থাকলেও কিন্তু জ্বিনজাতিকে আল্লাহ স্বাধীনতা দিয়েছেন। সৃষ্টিকর্তার এই দুই মাখলুখ...

ইসলাম কি কার্যত নিষিদ্ধ?!!!

লিখেছেন মোঃ মাকছুদুর রহমান ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৫:৪৭ বিকাল

সম্প্রতি বই মেলা থেকে মাদ্রাসার কিছু ছাত্রকে আটক করেছেন আমাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
কারন তাদের হায়ে ছিলো পাঞ্জাবী, পরনে পায়জামা, মাথায় টুপি আর মুখে দাড়ি।
ঠিক বুঝতে পারলাম না,কোন উদ্দেশ্যে তাদের বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেপ্তার করা হলো।
কিন্তু যেই দিকটি বিবেচনা করে তাদের। গ্রেপ্তার করা হলো,সেটা পরিষ্কার, আর তা হলো ইসলামী ড্রেস!
যেটা ট্রাম্পের আমেরিকা কিংবা মোদির ইন্ডায়ায়...

আসছে পুলিশের কমান্ডো ফোর্স

লিখেছেন ইগলের চোখ ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৪:৪৪ বিকাল


সম্প্রতি ধর্মের নামে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদের নৃশংস সন্ত্রাসী হামলায় জর্জরিত হচ্ছে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ। বাংলাদেশও সন্ত্রাসের সেই থাবা থেকে বাদ পড়েনি। বর্তমান সরকারের জঙ্গি-সন্ত্রাসবাদে জিরো টলারেন্সের পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বিভিন্ন কার্যক্রম চলমান রয়েছে এবং এই প্রক্রিয়ায় আরও গতি আনতে পুলিশবাহিনীকে নতুন নতুন প্রশিক্ষনের মাধ্যমে দক্ষ করে গড়ে তোলা হচ্ছে। সম্প্রতি...

জান্নাতে যাবো

লিখেছেন নূর আল আমিন ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৩:৫৯ দুপুর


"জুম্মার মধ্য দুপুর-
ফাল্গুন এখনো শুরুই হয়নি। মাথার উপরে সূর্য্যের তীব্রতা জানান দিচ্ছে চৈত্রমাস। চৈত্রের চৈতন্যের মতো ক্ষীপ্রতায় খাঁ খাঁ করছে পরিবেশ। জানালার পাশে এক নারীমূর্তি। মূর্তিটা দেখে খানিকক্ষণ গাঁ হিম হয়ে গেলো। আষাঢে় বর্ষার পাহাড়ি ঢলের মতো ধেয়ে আসা চোঁখের অশ্রুরেখা সাক্ষী দিচ্ছে কিছু একটা হয়েছে। কান্না কখন শুরু করেছে তা জানিনা। তবে চোখের নিচের চামড়ায়...

বড় ভুল

লিখেছেন মাহবুবা সুলতানা লায়লা ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৩:৪০ দুপুর

আকাশেতে চাঁদ তারা বাগানে ফোটে ফুল
যৌবনকালে ইবাদত না করা মস্ত বড় ভুল।

মৃতব্যক্তির সম্মানহানী বা লাশের অমর্যাদা না করা

লিখেছেন সামসুল আলম দোয়েল ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০২:৩৮ রাত

মৃতব্যক্তির সম্মানহানী বা লাশের অমর্যাদা না করা:
কোন মুসলমানের জন্য কখনো শোভনীয় নয় এমন কিছু করা যাতে অপর কোন মুসলমান কষ্ট পায়। মুসলমান কখনো কোনো ফালতু কাজ করা বা কথা বলতে পারে না। সুতরাং কেউ মারা গেলে অযথা তার সম্পর্কে বিরূপ কিছু বলা, মৃতব্যক্তির সম্মানহানীকর কিছু করা শোভনীয় নয়। সে মুমিন হৌক আর কাফির হৌক, কেননা সে তার আসল স্থানে পৌছে গেছে, আর আমরা সেই আসল ঠিকানাটা জানি না।
বরং...

নবী-জীবনের সোনালী অধ্যায়-৩ কে কিনবে এই গোলামটাকে ?!

লিখেছেন মুহাম্মদ সাদিক হুসাইন ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০১:৪৪ রাত

মানবজীবনের শ্রেষ্ঠফুল, আল্লাহর রাসূল। সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। তাঁর চরিত্র ফুলের চাইতেও পবিত্র। তাঁর উন্নত চরিত্রের একটি দিক এটাও ছিল, তিনি সাধারণ লোককেও গুরুত্ব দিতেন। এমন লোকের প্রতিও সম্মান ও শ্রদ্ধা প্রদর্শন করতেন যার তেমন কোনো গুরুত্বই ছিল না সমাজে।
বনি আশযা‘ আরবের অন্যতম প্রসিদ্ধ গোত্র বনি গাতফানের একটি শাখা। প্রাচীন যুগ থেকে এ গোত্রটির বসবাস ছিল মদিনার...