বৃক্ষ তোমার নাম কি?

লিখেছেন আরাফাত আমিন ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৩:৫২ দুপুর

খাটের নীচে লুকিয়ে আছেন কবির সাহেব।
স্ত্রী খাটে বসে কাদছেন।মরা কান্না।এই একটা বিষয়ে কবির সাহেবের মনে কোন দ্বন্দ্ব নেই।বউর কান্নাকাটি আর অভিনয় দক্ষতা বেশ প্রশংসনীয়।কান্নার কারণ আপাত পরিস্কার না।আচলে মুখ ঢেকে সুরে সুরে বিলাপ করছেন সখিনা বিবি।ছেলেরা বাড়িতেই আছে।বাইরে খেলাধুলা করছে বন্ধু-বান্ধবের সাথে।মায়ের কান্নার আওয়াজ পেয়ে ঘরে ঢুকল বড় ছেলে-
-মা,কাদছো কেন?
:আর বলিস না...

আসুন মূর্তির রাজত্ব ধ্বংস করে,গড়ে তুলি তাওহীদের রাজত্ব......। রাশেদ বিন জাফর

লিখেছেন রাশেদ বিন জাফর ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১২:১২ দুপুর

সুপ্রীম কোর্টের সামনে  মূর্তির  প্রতিস্থাপনের প্রতিকটি না
জানাই।
সুপ্রীম কোর্টে মূর্তি প্রতিস্থাপন আমরা ৯০% মুসলিম জাতি এটা মেনে নিতে পারছি না। আল্লাহ তায়ালা পৃথিবীতে শিরক তথা অংশীদারকে বিলুপ্ত করে একত্ববাদকে প্রতিষ্ঠার জন্য নবী ও রাসূল পাঠিয়েছেন। প্রত্যেক নবী ও রাসূল মূর্তির বিরুদ্ধে দাওয়াত দিয়েছেন এবং মূর্তি ধ্বংসে তাদের কার্যকরী ভূমিকা ছিল।
আর তাই আমারাও উম্মদে...

কলার পাতায় কারা খেয়েছেন আওয়াজ দেন

লিখেছেন দ্য স্লেভ ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১০:১৬ সকাল


(ছবি সংযুক্ত হলনা)
আহ কলার পাতায় খাওয়ার যে মজা তা না খেলে বোঝা যাবেনা। প্রথমে বুটের ডাল,চর্বি,আলু দিয়ে বানানো তরকারী(স্থানীয় নাম ছাক্কা)দেয়। যারা মনে করে গোস্ত কম খাওয়াবে,তারা এই ছাক্কা দ্বিতীয়বার দিয়ে যায়। তবে তৃতীয়বার সাধারনত ছাক্কা দেয়না,তাহলে গৃহস্তের ১৪ গুষ্টি উদ্ধার করে অতিথীরা। সামাজিকভাবে অপদস্ত হওয়ার ভয়ে মানুষ মরলে মহা উৎসাহে এই উৎসব পালিত হয়।...

আমার চোখে "বন্ধুত্ব" এবং "সহোপাঠি"

লিখেছেন জিহর ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১২:১৪ রাত

ক্লাসমেট, আর ফ্রেন্ড এক জিনিস না...
ক্লাসের সবাইকে বন্ধু ভাবাটা একটা প্রচলিতো ভুল...
যেটা ক্রমেই ব্যাপক হচ্ছে ...
বন্ধু তো হলো সে,
যার সাথে হৃদয়ের বন্ধন...!
যে কারনে ছেলে মেয়েতে বন্ধুত্ব হয় না...!
যদি কোন হাজি সাহেব, বা সুফি দরবেশ এটা দাবি করেন যে বিপরীত লিঙ্গের সাথে "বন্ধুত্ব" সম্ভব...!

নাজনীন আক্তার হ্যাপীর শেষ আকুতি !!

লিখেছেন Mujahid Billah ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৫:৩৮ বিকাল

শোবিজ আঙ্গনের আলোচিত ও সমালোচিত মডেল, অভিনেত্রী নাজনীন আক্তার হ্যাপী। ক্রিকেটার রুবেলের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়েও কম জলঘোলা হয়নি। এরপর হঠাৎই শোবিজ দুনিয়া থেকে হারিয়ে গেলেন। বেছে নেন ধর্মকর্মের পথ। এরপর থেকে অামূল পরিবর্তন। এক সময়ের আলোচিত অভিনেত্রী এখন হিজাবী ও ধর্মপরায়ণ নারী।
মিডিয়া ছেড়ে দূরে সরে গেলেও বিতর্কিত তাকে ছাড়েনি। তবে এখন তিনি বিয়ে করে সংসার ধর্মে মনোযোগী হয়েছেন।...

এই ষড়যন্ত্রের শেষ দেখতে চাই

লিখেছেন ইগলের চোখ ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৩:১৬ দুপুর


আমরা বাঙালি। বাংলা আমাদের ভাষা। আর বাংলাদেশ আমাদের দেশ। আমাদের হাজার বছরের ইতিহাস আছে, ঐতিহ্য আছে, সংস্কৃতি আছে। কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য যে আমাদের এই সংস্কৃতিকে ভুলিয়ে দেওয়া, আমাদের নিজেদের ভাষাকে ভুলিয়ে দেওয়ার এক গভীর চক্রান্ত শুরু হয়েছিল, ঠিক যখন ঐ পাকিস্তান নামে একটি দেশ হ’ল— যার দুটি অংশ। প্রায় হাজার/১২০০ মাইল দূরে একটা পূর্ব, আরেকটা পশ্চিম পাকিস্তান গড়ে তোলা হল। বাঙালিরাই...

বাংলাদেশসীমান্তে হত্যা করবে ভারতীয় বিএসএফ। কিন্তু প্রতিবাদ ও করা যাবে না।

লিখেছেন মাহফুজ মুহন ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০২:৫৬ দুপুর

২৫ ফেব্রুয়ারি,২০১৭ শনিবার গুলশানের একটি সেন্টারে ‘সীমান্ত হত্যা রাষ্ট্রের দায়’ শীর্ষক এক সেমিনারের আয়োজন করে জনগণতান্ত্রিক আন্দোলন নামের একটি সংগঠন।
প্রবন্ধ উপস্থাপনের আগেই পুলিশের বাধায় সেমিনার বন্ধ হয়ে যায়।
সকাল ১০ টায় সেমিনার শুরুর সঙ্গে সঙ্গে গুলশান থানা পুলিশের এক কর্মকর্তা অনুষ্টানে গিয়ে তা বন্ধ করতে বলেন।
দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার সম্পাদক মাহমুদুর রহমান...

"আসমানি সাহায্যের প্রতিক্ষায় (বাস্তবতার আলোকে)"

লিখেছেন মাহবুবা সুলতানা লায়লা ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০২:৫৪ দুপুর

পৃথিবীতে কোন মানুষই পরিপূর্ণ সুখী নয়! সবার মাঝেই আছে কোন না কোন অপূর্ণতা! হোক তা ছোট থেকে ছোট বা বড় থেকেও বড়!পৃথিবীতে নারী জাতিকে মা বানিয়ে আর পুরুষকে বাবার আসনে বসিয়ে চলছে আল্লাহর দেয়া নিয়মে! এরই মাঝে কত ঘটনা, দূর্ঘটনা, কত অমানুষিকতা, কত অশালীনতা হচ্ছে তার কোনই ইয়াত্তা নেই! অনেক মায়ের শুধু ছেলে সন্তান আছে মেয়ে নেই সে কারনে তিনি ভোগেন মেয়ে না থাকার কষ্টে! অথচ একটু বিবেগ খাঁটিয়ে...

পথ চলতে # মুক্তিযোদ্ধাদের মুক্তিযুদ্ধ (১)

লিখেছেন চোরাবালি ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০২:২৮ দুপুর

গতকাল ফিরছিলাম ঢাকা থেকে। ট্রেনের মধ্যে সুলভ শ্রেণী এমনিতেই একটু জাকজমক পূর্ণ তার পর কিছু ক্ষণ পর পর ভিক্ষুক আর হকার তো লেগেই সাথে। মাঝে মাঝে বেশ বিনোদনও পাওয়া যায় এসব থেকে। এই বাদেন, অন্ধের হাতে দান করবেন, কমলা নিবেন ভাই কমলা, বুট পালিশ, হিজড়া এসে ১০টাকা দে--------------------------------------- । যদি কেও বিরক্তভাবে নেন আপনার জার্নির ১২টা বেজে ১৩টা পার হয় যাবে। তাই আমি সব সময়ই বিনোদন হিসেবে নিয়ে থাকি।...

তুমি আছ অন্তরে

লিখেছেন সাগরের ঢেউ ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০১:২২ দুপুর


আমার নিঃসঙ্গ সময় গুলো
তুমি ভরিয়ে দিয়েছিলে অনাবিল আনন্দে ।
সেই আনন্দে আমি ভুলেছিলাম
আমার যন্ত্রনাময় দিনগুলো ।
কখনো ভুল করে ও মনে হয়নি তুমি
হারিয়ে যাবে আমাকে নিঃস্ব করে ।

এক ধনী লোকের কাহিনী

লিখেছেন দ্য স্লেভ ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১২:৫২ দুপুর


জাফর মিয়া বলদপুর গ্রামের চায়ের দোকানদার। চা ভালো বানায় তাই লোকজন আসে বেশ। চা উপভোগ করে। জাফর মিয়া বিড়ি বিক্রী করেনা কারন এটা নেশাদার দ্রব্য এবং ক্ষতিকর,সে পান বিক্রী করলেও জর্দা বিক্রী করেনা কারন সেখানেও তামাক রয়েছে,যা নেশাকর এবং ক্ষতির মাত্রা বৈজ্ঞানিক পরিক্ষায় প্রমানিত হওয়ার কারনে মুস্তাহিদগন হারাম ঘোষনা করেছেন তামাকজাত দ্রব্যসমূহকে। জাফর মিয়া ৫ ওয়াক্ত...

দেশের গণতন্ত্র উলঙ্গ বলার সেই শিশুটা কই

লিখেছেন কাব্যগাথা ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৬:২৮ সকাল

রাজা উলঙ্গ,তবুও মোসাহেবরা সব করছিলো চিৎকার,
বল্ছিলো, রাজা মশাইয়ের পোশাকটা কি চমৎকার!
তীক্ষ প্রশ্নটা করেছিল এক শিশু নির্ভীক সত্যতায়,
রাজা তুমিতো নেংটো, তোমার কাপড় কোথায়?
***
বাংলাদেশ হয়েছে আজ রূপকথার সে রাজ্য,
মিথ্যার মুখোশ পড়েছে সবাই, সত্য পরিত্যাজ্য |

আমাদের পূর্ব পুরুষদের শত্রু-মিত্র পর্ব ৩৬

লিখেছেন আনিসুর রহমান ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৬:০১ সকাল

আমরা পূর্বেই বলে ছিলাম যে বাংলার সুলতান আলাউদ্দিন হোসেন শাহ কতৃক শ্রী চৈতন্যর সাহায্যে বৈষ্ণব মুভমেন্ট সৃষ্টির উদ্দেশ্য ছিল- এক, এই অঞ্চলের ইসলাম সম্পর্কে অজ্ঞ মুসলিমদের মাঝে পৌত্তিলোকতার বিষবাস্প ঢুকিয়ে দিয়ে অর্ধেক অর্ধেক গুষ্ঠি তৈরি করা যেমন লালন ফকীরের বাউল। এই মিশনে সে যে সফল হয়ে ছিল তার প্রমান আমরা পাই ১৯১১ সালের ভারতের আদমশুমারীর রিপোর্টে। এই রিপোর্টে বলা হয়েছে...

একশ' বছরের রাজনীতি: বই ডাওনলোড

লিখেছেন মুসা বিন মোস্তফা ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১১:২৯ রাত


মুখবন্ধ
বাংলা চৌদ্দ শতক জাতীয় উদযাপন পরিষদের প্রকাশনা কর্মসূচীর অন্যতম বিষয় ছিল এই অঞ্চলের গত একশ’ বছরের রাজনীতির ওপর একটি প্রামান্য ও তথ্যবহুল গ্রন্থ প্রণয়ন করা। বিষয়টি নিঃসন্দেহে অতিশয় পরিশ্রমসাধ্য, দুরূহ কাজ। কারণ বর্তমান সময়ে ইতিহাসের উপাদান নিরাশক্তভাবে উত্থাপন করার যে ঝুঁকি রয়েছে তা অতিক্রম করতে সহজে কেউ সাহসী হয় না। তাছাড়া জাতীয় ইতিহাসের প্রতিটি পর্যায়ে রাজনৈতিক...

''বি ডি আর বিদ্রোহের ভেতরের কথা''

লিখেছেন রঙ্গিন স্বপ্ন ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ০৮:২১ রাত


১) বিএনপি নেত্রী বললেন ফখরুদ্দীন- মঈন উদ্দীনের কাজকে বৈধতা দেওয়া হবে না, আওয়ামিলীগ নেত্রী বললেন- দেওয়া হবে। নির্বাচন সেদিনই হয়ে গেল। ২৯ ডিসেঃ ২০০৮ ছিল আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হওয়ার দিন মাত্র। ''ফখরুদ্দীন- মঈন উদ্দীন'' তাদের বিচারের মুখোমুখি করা হবে না শর্তে আওয়ামিলীগকে বিপুল আসনের সংখ্যা-গরিষ্ঠতায় ক্ষমতায় বসালো ( মরহুম আঃ জলীল, সাবেক সাঃ সম্পাদক- তিনি লন্ডনে বাংলা টিভির সাথে...